শুক্রবার ২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ ১৬ নভেম্বর, ২০১৮ শুক্রবার

শেখ হাসিনাকে ‘মাদার অব এডুকেশন’ উপাধি

নিউজ২৪ ডেস্ক: সরকারি চাকরিতে নিয়োগে কোটা পদ্ধতি বাতিলের ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার সংসদে তিনি এ ঘোষণা দেন। কোটা বাতিলের ঘোষণা দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে ‘মাদার অব এডুকেশন’ উপাধি দিয়েছে আন্দোলনে নামা সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটি।

বৃহস্পতিবার (১২ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি সংলগ্ন রাজু ভাস্কর্যের সামনে সংবাদ সম্মেলন করে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নূর আন্দোলন স্থগিতের ঘোষণা দেন। এ সময় তিনি শেখ হাসিনাকে এ উপাধি দেন।

তিনি আন্দোলন স্থগিত করার পাশাপাশি আন্দোলনকালে আটককৃতদের মুক্তি দাবি, মামলা প্রত্যাহার, আহতদের চিকিৎসার দাবি জানান। এছাড়া সংগঠনের নেতারা ঢাবির ভিসির ভবনে হামলাকারীদের শাস্তি দাবি করেন।

সংবাদ সম্মেলন শেষে আনন্দ মিছিল করেন আন্দোলনকারীরা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে রাজু ভাস্কর্য থেকে মিছিলটি শুরু হয় এবং ক্যাম্পাস এলাকা প্রদক্ষিণ করে আবার রাজু ভাস্কর্যে এসে শেষ হয়।

প্রসঙ্গত, কোটা সংস্কারের দাবিতে বেশ কিছু দিন ধরে আন্দোলন করে আসলেও গত রোববার থেকে তা বৃহৎ আকারে রূপ নেয়। সেদিন থেকে দেশের সরকারি এবং বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা কোটা সংস্কারের দাবিতে সরব হন। দেশের নানা জায়গায় সড়ক অবরোধ করেন।

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার জাতীয় সংসদে কোটা ব্যবস্থা বাতিলের কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কোটা নিয়ে যখন এতকিছু, তখন কোটাই থাকবে না। কোনো কোটারই দরকার নেই।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘কোটা থাকলেই সংস্কারের প্রশ্ন আসবে। এখন সংস্কার করলে আগামীতে আরেক দল আবারও সংস্কারের কথা বলবে। কোটা থাকলেই ঝামেলা। সুতরাং কোনো কোটা পদ্ধতিরই দরকার নেই। কোটা ব্যবস্থা বাদ, এটাই আমার পরিষ্কার কথা।’ তবে যারা প্রতিবন্ধী ও ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী তাদের অন্যভাবে চাকরির ব্যবস্থা করার কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

নিউজ২৪ ডেস্ক/সংবাদদাতা/মিতু

Categories: জাতীয়

Leave A Reply

Your email address will not be published.