রবিবার ৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ ১৮ নভেম্বর, ২০১৮ রবিবার

খালেদা জিয়ার আরেক মামলার রায় আসন্ন!

পুলক ঘটক: “চ্যারিটেবল দুর্নীতি” মামলার রায় আসছে। মামলার মেরিট ও স্বাক্ষ্য-প্রমাণ সম্পর্কে যতদূর জানি, এই মামলাতেও খালেদা জিয়ার সাজা হওয়া অবিসম্ভাবি। এখন আদালত কতটুকু অনুকম্পা দেখাবে -অরফ্যানেজ ট্রাস্ট নামলার মত বয়স ও অবস্থান বিবেচনায় লঘু সাজা দেবে কিনা -সেটা দেখার বিষয়। তবে আগামী ৫/৭ বছরে খালেদা জেল থেকে বের হতে পাচ্ছেন না – এটা দিবালোকের মত পরিস্কার। তিনি যদি বের হন তাহলে বুঝতে হবে রাজনীতির নেপথ্য মঞ্চে সমঝোতা হয়েছে। সেই সমঝোতার জন্য দেশি-বিদেশী খেলোয়াররা এখন সক্রিয়। তবে দিল্লী বহু দূর!

২১ আগস্ট বোমা হামলা মামলার রায় আসন্ন। এর মধ্যে তারেক জিয়াকে দেশে আনতে পারলে বাংলাদেশের মানুষ তাকে ফাঁসি কাষ্ঠে ঝুলতে দেখবে। মতিউর রহমান নিজামী কিংবা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর মত মহাপ্রতাপশালী ব্যক্তিবর্গ কখনো ফাঁসিতে ঝুলবেন – বাংলাদেশের অনেক মানুষ একসময় তা কল্পনা করতে পারেনি। তারেক জিয়াকে দেশে আনা সম্ভব হলে তার ক্ষেত্রেও ফাঁসি কার্যকর হওয়ার পর কিছু মানুষ বিশ্বাস করবে, “ফাঁসিটা হল”।

প্রায় চার বছর আগে অবজারভারে রিপোর্ট করেছিলাম, “Court will fix the fate of BNP,” এবং “Court will determine future course of Bangladesh politics. ” দুটি রিপোর্টই ডাউনপ্লে করা হয়েছিল। আজ “খালেদাবিহিন রাজনীতি”র হিসাব-নিকাষ শুরু হয়ে গেছে। অর্থাৎ বহু বছর পর বাংলাদেশের রাজনৈতিক মেরুকরণ বদলাতে যাচ্ছে। রাজনীতির দ্বিদলীয় মেরু থেকে বাংলাদেশ একদলীয় মেরুতে প্রবেশ করতে যাচ্ছে, নাকি বিকল্প (বহুদলীয়?) মেরুকরণ ঘটবে তা এখন দেখার অপেক্ষা।

Categories: আইন-আদালত

Leave A Reply

Your email address will not be published.